মতলবে বিশ ফোড়া চিকিৎসা নিয়ে কাণ্ড

hqdefault-1

আব্দুল মান্নান খান, মতলব প্রতিনিধি :
মতলব দক্ষিণ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক নিগার সুলতানা রোগীকে হয়রানি ও অহেতুক পরীক্ষা নিরীক্ষা করানোর অভিযোগ করেছে এক রোগীর স্বজনরা।  অহেতুক পরীক্ষা নিরীক্ষা করানোর অভিযোগও করেন তারা।

জানাযায়, মতলব পৌরসভার দিঘলদী এলাকা থেকে এক তরুণীর শরীরে একটি বিশ ফোড়ার চিকিৎসা নিতে ২৫ নভেম্বর বুধবার সকাল ১১টার দিকে মতলব দক্ষিণ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগে আসেন।

সেখানে কর্তব্যরতরা রোগীর স্বজনদের আউটডোরে একজন মহিলা ডাক্তার দেখানোর পরামর্শ দেয়। স্বজনরা রোগীকে নিয়ে ডাক্তার নিগার সুলতানার কাছে যায়। আউটডোরে বসে প্রাইভেট বিজেট নিয়ে রোগী দেখে কিছু পরীক্ষা নিরীক্ষা করার পরামর্শ দেন। রোগীর স্বজনরা পরীক্ষা করাতে অপারগতা প্রকাশ করলেও ডাক্তারের চিকিৎসা নিশ্চিতের জন্য পরীক্ষা করিয়ে আসেন। কিন্তু পরীক্ষার কাগজপত্র দেখে চিকিৎসা দিতে অপারগতা প্রকাশ করে বিদায় করে দেয়। পরে রোগীর স্বজনরা রোগীকে অন্যত্র নিয়ে তার ফোড়ার চিকিৎসা করিয়ে বাড়িতে চলে যান।

রোগীর সাথে থাকা স্বজনরা ক্ষোভ নিয়ে বলেন, তিনি (ডাক্তার নিগার সুলতানা) সরকারী হাসপাতালে অফিস সময় বিজেট নিয়ে রোগী দেখলেন। পরীক্ষা করালেন, তারপর পারবে না বলে বিদায় করে দিলেন। তিনি না পারলে প্রথমেই আমাদের বিদায় করে দিতেন, টাকা ও সময় ব্যায় করিয়ে বিদায় করে দেয়া কি আমাদের হয়রানি করলো, কেন এই হয়রানি?

এ বিষয়ে ডাক্তার নিগার সুলতানা বলেন, আমাদের এখানে সার্জারি ডাক্তার নেই, সপ্তাহে একদিন আসে। তাই আমি দেখে বুঝে তাদের আগমী দিন আসার পরামর্শ দিয়েছি।

Recommended For You

About the Author: Matlaber Alo

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *